ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

এনএন বিডি, ঢাকা

১১ জানুয়ারি ২০১৯, ২০:০১

একাদশ সংসদ নির্বাচন অনিয়মের রিপোর্ট তৈরি করেছে খেলাফত মজলিস

10211_379790_148.jpg
খেলাফত মজলিসের আমির মাওলানা মোহাম্মদ ইসহাক বলেছেন, গত ৩০ ডিসেম্বর নির্বাচনের নামে জাতির সাথে প্রতারণা করা হয়েছে। নির্বাচনে বিরোধী দলীয় প্রার্থীদের স্বাধীনভাবে প্রচার-প্রচারণার নূন্যতম সুযোগ দেয়া হয়নি। সরকারী দল ও পুলিশ প্রশাসনের হামলা, মামলা, গ্রেফতার নির্যাতনের শিকার হয়েছেন বহু সংসদ সদস্য পদপ্রাথী ও তাদের কর্মী-সমর্থকরা। পরিকল্পিতভাবে বহু প্রার্থীর প্রার্থীতা বাতিল করে দেয়া হয়েছে।

ভোট শুরুর আগের রাতেই অধিকাংশ আসনে প্রশাসনের সহযোগীতায় সরকারী দল তথা মহাজোটের প্রার্থীদের পক্ষে ব্যালটে সিল মেরে বাক্স ভর্তি করে রাখা হয়। ভোটের দিন অধিকাংশ ভোট কেন্দ্রে বিরোধী দলীয় প্রার্থীদের এজেন্টদের কেন্দ্রে ঢুকতে দেয়া হয়নি। যেসব কেন্দ্রে কিছু কিছু এজেন্ট ঢুকেছিলো সময়ের ব্যবধানে তাদেরকেও জোর করে কেন্দ্র থেকে বের করে দিয়ে মহাজোটের নৌকা, লাঙ্গল মার্কায় সিল মরা হয়। রাষ্ট্রীয় প্রশাসনযন্ত্রকে ব্যবহার করে জনগণের উপর জুলুম নির্যাতন চালিয়ে ফ্যাসীবাদী সরকারকে টিকিয়ে রাখার জন্যে নির্বাচনের নামে যে প্রহসন মঞ্চস্থ করা হয়েছে তা জাতির ইতিহাসে একটি কলঙ্কজনক অধ্যায় হয়ে থাকবে।

খেলাফত মজলিস মনোনীত সংসদ সদস্য পদপ্রার্থীদের নিয়ে আয়োজিত নির্বাচনোত্তর মতবিনিময় সভায় সভাপতির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন। শুক্রবার বিজয়নগরস্থ মজলিস মিলনায়তনে মহাসচিব ড. আহমদ আবদুল কাদেরের পরিচালনায় অনুষ্ঠিত বৈঠকে অন্যান্যের মধ্যে বক্তৃতা করেন, সংগঠনের নায়েবে আমির মাওলানা সৈয়দ মজিবর রহমান, মাওলানা সাখাওয়াত হোসাইন, মাওলানা আবদুল বাছিত আজাদ, যুগ্মমহাসচিব মাওলানা মুহাম্মদ শফিক উদ্দিন, অ্যাডভোকেট জাহাঙ্গীর হোসাইন, শেখ গোলাম আসগর, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা আহমদ আলী কাসেমী, অধ্যাপক আবদুল হালিম, এডভোকেট মোঃ মিজানুর রহমান, অধ্যাপক মো: আবদুল জলিল, মাওলানা তোফাজ্জল হোসনে মিয়াজী, মাওলানা আজিজুল হক, অধ্যাপক রুহুল আমীন কামাল, মাওলানা আবদুল আলী আরমান, প্রভাষক মুহাম্মদ আবদুল করিম, এডভোকেট সারওয়ার রহমান চৌধুরী, এহতেশামুল হক শামীম, মাওলানা আবু বকর সিদ্দিকী প্রমুখ।

সভায় একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বীতাকারী খেলাফত মজলিস মনোনীত প্রার্থী ও তাদের এজেন্টদের পক্ষ থেকে বিভিন্ন সংসদীয় আসনে সরকার ও প্রশাসনের ছত্রছায়ায় ৩০ ডিসেম্বরের নির্বাচনে যে ব্যাপক অনিয়ম, ভোট জালিয়াতি, জুলুম, নির্যাতন, হামলা, মামলা, গ্রেফতারের ঘটনা ঘটেছে তার রিপোর্ট উপস্থাপন করা হয়।