ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG

বিশেষ প্রতিনিধি

১৪ জানুয়ারি ২০১৯, ১৭:০১

বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে ১৪তম আন্তর্জাতিক প্লাস্টিক মেলা

10305_ড়ড়ড়.jpg
রাজধানীর ইন্টারন্যাশনাল কনভেশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) আগামী (১৭ জানুয়ারি) বৃহস্পতিবার থেকে শুরু হচ্ছে ‘১৪তম আন্তর্জাতিক প্লাস্টিক মেলা-২০১৯। এ মেলা চলবে আগামী ২০ জানুয়ারি পর্যন্তু।আজ সোমবার (১৪ জানুয়ারি) পুরানা পল্টনের বাংলাদেশ প্লাস্টিকদ্রব্য প্রস্তুতকারক ও রফতানিকারক অ্যাসোসিয়েশনের (বিপিজিএমইএ) কনফারেন্স কক্ষে এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানানো হয়।

সংগঠনের সভাপতি মো. জসিম উদ্দিন আন্তর্জাতিক প্লাস্টিক মেলার তথ্য তুলে ধরেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন সাবেক সভাপতি এএসএম কামাল উদ্দিন, ইউসুফ আশরাফ, ফেরদৌস ওয়াহেদ এবং শামীম আহমেদসহ বর্তমান ও সাবেক নেতৃবৃন্দ।

মো. জসিম উদ্দিন বলেন, প্লাস্টিক শিল্পের সবাইকে এক ছাদের নিচে এনে পরিচিত করার পাশাপাশি সবাইকে প্লাস্টিক পণ্যগুলো তুলে ধরতে এই মেলার আয়োজন করা হয়েছে।

লিখিত বক্তব্য বলা হয়, চার দিনব্যাপী মেলার উদ্বোধন করবেন শিল্পমন্ত্রী নুরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন। তিনি বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টায় হোটেল রেডিসনে এ মেলার উদ্বোধন ও মেলা পর্যবেক্ষণ করবেন।

এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের বেসরকারি খাত বিষয়ক উপদেষ্টা সালমান এফ রহমান এমপি এবং ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআইয়ের সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিনসহ ব্যবসায়ী নেতারা। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি।

জসীম উদ্দিন জানান, এবারে মেলায় চীন, ভারতসহ মোট ১৯টি দেশ অংশ নেবে। এতে মোট ৪৮০টি কোম্পানির মোট ৭৮০টি স্টল থাকবে। যা গত বছরের থেকে ৬২ দশমকি ৫০ শতাংশ বেশি। কোম্পানির গ্রোথ বেড়েছে ৭ দশমিক ৬৯ শতাংশ।

সংবাদ সস্মেলনে জানানো হয়, এখন দেশে প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদন ও বিপণন হচ্ছে মোট ২৫ হজার কোটি টাকার। এর মধ্য থেকে  সরকার ৩ হাজার ৫শ’ কোটি টাকার রাজস্ব পায়। এখাতে মোট ১২ লাখ লোকের কর্মসংস্থান রযেছে বলেও জানান জসিম উদ্দিন।

তিনি জানান,অভ্যন্তরীণভাবে বর্তমানে প্রায় ২৫ হাজার কোটি টাকার প্লাস্টিকপন্য উৎপাদন ও বিপনন হচ্ছে।এই সেক্টর প্রতিবছর ৩ হাজার ৫শ কোটি টাকা রাজস্ব দিয়ে থাকে।ছোট বড় মিলিয়ে দেশে বর্তমানে ৫ হাজারেরও বেশী প্লাস্টিক কারখানা গড়ে উঠেছে।প্লাস্টিক পন্যের ব্যবহারও ২০ শতাংশ হারে বাড়ছে বলে উল্লেখ করেন জসীম উদ্দিন।