ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG

এনএনবিডি ডেস্ক

১৬ জানুয়ারি ২০১৯, ০৭:০১

মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে তলব করে প্রতিবাদ

10363_1................jpg
বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূন্য রেখার তুমব্রু খালে অবৈধভাবে পাকা স্থাপনা নির্মাণের কারণ জানতে চেয়ে ঢাকায় নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’কে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে তাকে তলব করার মাধ্যমে নেপিডোর কাছে এ বিস্তারিত ব্যাখ্যা জানতে চেয়ে একটি কূটনৈতিক চিঠি দিয়েছে ঢাকা।

কূটনৈতিক সূত্র জানিয়েছে, বিকেল ৪টায় মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও‘কে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে ডেকে এনে জানতে চাওয়া হয়, বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূন্যরেখার ১৫০ গজের মধ্যে তুমব্রু খালে মিয়ানমারের পাকা স্থাপনা নির্মাণের কারণ কী। এ সময় রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও জানান, তার জানামতে ওই স্থাপনা বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তের শূন্য রেখার ৩০০ গজের বাইরে। আর সেটা কোনো পাকা স্থাপনা নয়। ওইখানে আগে থেকেই অস্থায়ী স্থাপনা রয়েছে। ওই অস্থায়ী স্থাপনার খুঁটিগুলো স্থায়ী করা হচ্ছে। এ বিষয়ে ঢাকার উদ্বেগ নেপিডোকে জানানো হবে বলে উ লুইন ও জানান।

এদিকে, একই বিষয়ে উদ্বেগ জানিয়ে মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপিকে গতকাল (সোমবার) চিঠি দিয়েছে বাংলাদেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিবি।

এর আগে, আরাকান আর্মি ও আরসা নিয়ে বাংলাদেশকে জড়িয়ে মিয়ানমারের রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের মুখপাত্রের দেওয়া বিবৃতির কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে ঢাকা। মিয়ানমারকে গত ৮ জানুয়ারি কূটনৈতিক চ্যানেলে ওই প্রতিবাদপত্র পাঠানো হয়।

মিয়ানমার সরকারকে দেওয়া প্রতিবাদপত্রে ঢাকার পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, বাংলাদেশে আরাকান আর্মি এবং আরসার কোনো ঘাঁটি নেই। মিয়ানমারের রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের মুখপাত্র আরাকান আর্মি ও আরসা নিয়ে বাংলাদেশকে জড়িয়ে গণমাধ্যমে যে বিবৃতি দিয়েছে তা বাংলাদেশের নজরে এসেছে। মিয়ানমারের রাষ্ট্রপতি কার্যালয়ের মুখপাত্রের ওই বিবৃতি মিথ্যা ও মনগড়া।

এছাড়া, বাংলাদেশ-মিয়ানমার সীমান্তে গত ৪ নভেম্বর মিয়ানমারের সীমান্তরক্ষী বাহিনী বিজিপি ৪১ রাউন্ড গুলি ছোড়ায় দেশটির রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’কে গত ৭ নভেম্বর দুপুরে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে তলব করা হয়। বিজিপি কেন এমন ঘটনা ঘটাল, তার ব্যাখ্যা চেয়ে রাষ্ট্রদূত উ লুইন ও’কে কূটনৈতিক চিঠি দেয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়।