ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৬ জানুয়ারি ২০১৯, ১০:০১

তিন সপ্তাহের জন্য ‘অচলাবস্থা’ বন্ধের ঘোষণা ট্রাম্পের

10679_ট্রাম্প.jpg
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে দীর্ঘ সময়ব্যাপী চলা ‘আংশিক অচলাবস্থা’ বা ‘শাটডাউন’ বন্ধে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এমন একটি চুক্তিতে পৌঁছানোর ঘোষণা দিয়েছেন, যেখানে তাঁর দাবি করা মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণে জন্য অর্থ বরাদ্দের কথা উল্লেখ নেই।  

‘অচলাবস্থা’ চলার ৩৫তম দিনে শুক্রবার হোয়াইট হাউজের গোলাপ বাগানে এক বক্তব্যে ডোনাল্ড ট্রাম্প আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সরকারি কর্মচারীদের জন্য অর্থ ছাড়ের ঘোষণা দিয়েছেন।

তবে মার্কিন প্রেসিডেন্ট এ কথাও বলেছেন, এই সময়ের মধ্যে যুক্তরাষ্ট্র ও মেক্সিকোর মধ্যে দেয়াল নির্মাণের জন্য কাঙ্ক্ষিত অর্থ বরাদ্দের জন্য একটি যথাযথ চুক্তি না হলে তিনি ফের ‘শাটডাউনে’ যাবেন।

ডোনাল্ড ট্রাম্প তাঁর ঘোষণায় বলেন, ‘আমি খুবই গর্বের সঙ্গে আজ ঘোষণা করছি যে, শাটডাউন বন্ধে আমরা চুক্তিতে পৌঁছেছি এবং পুনরায় ফেডারেল সরকার খুলতে যাচ্ছি।’

‘তিন সপ্তাহের জন্য, ফেব্রুয়ারির ১৫ তারিখ পর্যন্ত সরকারের অর্থ বরাদ্দের জন্য আমি বিলে স্বাক্ষর করব। আমি এটাও নিশ্চিত করছি যে, কর্মচারীরা খুব দ্রুত বা যত দ্রুত সম্ভব তাদের বকেয়া পাওনাদি পেয়ে যাবেন।’  ‘শাটডাউনের’ ফলে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদের ‘খাঁটি দেশপ্রেমিক’ বলে উল্লেখ করেন।

দীর্ঘদিনের প্রতিশ্রুতিবদ্ধ সীমান্ত দেয়ালের অর্থ বরাদ্দ নিয়ে ট্রাম্প ও সিনেটরদের মধ্যে সমঝোতা না হওয়ার ফলে ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহ থেকে মার্কিন কেন্দ্রীয় সরকারের বিভিন্ন বিভাগে অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়। এতে আট লাখ কর্মচারী বেতনহীন হয়ে পড়েন।

যুক্তরাষ্ট্রের রাজনৈতিক নিয়মানুযায়ী,  কোনো বিষয়ে সিনেটররা একমত হতে না পারলে অথবা স্বয়ং প্রেসিডেন্ট যখন কোনো বিলে নির্ধারিত সময়ের মধ্যে সই করতে না পারেন তখনই ‘শাটডাউন’ হয়।

২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারের সময় যেকোনো মূল্যে যুক্তরাষ্ট্র-মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়ার দুই বছর পরেও সেই দেয়াল নির্মিত হয়নি।