ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG

২৯ জানুয়ারি ২০১৯, ১১:০১

২২ বছরের সাজাপ্রাপ্ত স্বপনের আরও ৩ বছর কারাদন্ড!

10769_4.jpg
প্রতিকী ছবি
২২ বছরের সাজা থেকে নিজেকে মুক্ত রাখতে চাচাতো ভাইয়ের নাম ঠিকানা দেওয়ার মামলায় গ্রেপ্তার স্বপন দাশকে তিন বছরের সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে দুই হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়। গতকাল সোমবার চট্টগ্রাম মহানগর হাকিম মো. আল ইমরান খান এই রায় দেন।

ঘটনার শুরু ২০০৪ সালের ১৬ আগস্ট। সেই দিন র‍্যাব অস্ত্র–গুলি ও বিস্ফোরকসহ আসামি স্বপন দাশকে কয়েকজন সহযোগীসহ গ্রেপ্তার করে। ওই সময় গুলিবিদ্ধ হন তিনি। কিন্তু গ্রেপ্তারের পর নিজের নাম পরিচয় গোপন রেখে চাচাতো ভাই অমর দাশের নাম ঠিকানা বলেন।

অমর নাম নিয়ে স্বপন ২০০৭ সালে কারাগার থেকে জামিনে মুক্তি পান। ইতিমধ্যে এই মামলায় আসামির ২২ বছরের সাজা হয়। গ্রেপ্তারি পরোয়ানা পেয়ে সদরঘাট থানার পুলিশ অমরকে গ্রেপ্তার করে। অবাক হয়ে যায় তাঁর পরিবার।

অমর সত্যিই নিরপরাধ কি না, তদন্ত শুরু করেন সদরঘাট থানার ওসি নেজাম উদ্দিন। একপর্যায়ে তিনি প্রকৃত আসামি স্বপন দাশকে গ্রেপ্তার করেন। পরে তিনি আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দিও দেন।

স্বপন দাশ স্বীকার করেন, নিজেকে সাজামুক্ত রাখতে গ্রেপ্তারের পর চাচাতো ভাই অমরের নাম–ঠিকানা দিয়েছেন।

এই ঘটনায় নগরের ডবলমুরিং থানায় স্বপনের বিরুদ্ধে মামলা হয়। মুক্তি পান নিরপরাধ অমর।

প্রথম আলোয় ‘পুলিশের ভুলে কারা ভোগ করছেন নিরপরাধ অমর’ শিরোনামে গত আগস্ট মাসে প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়।

সদরঘাট থানার ওসি নেজাম উদ্দিন বলেন, এ রায়ের ফলে ভবিষ্যতে আসামিরা নিজের নাম–ঠিকানা গোপন করার সাহস করবেন না। স্বপনকে আগের মামলার দণ্ড ২২ বছরের পাশাপাশি নতুন মামলায় আরও তিনবছর সাজা ভোগ করতে হবে।