ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG

রয়টার্স

৭ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ২০:০২

ইন্দোনেশিয়ার দোকানঘর থেকে ১৯৩ বাংলাদেশি উদ্ধার

10947_vvvv.jpg
ইন্দোনেশিয়ার সুমাত্রা দ্বীপের মেদান শহরের একটি বদ্ধ দোকানঘর থেকে ১৯৩ বাংলাদেশি নাগরিককে উদ্ধার করেছে দেশটির অভিবাসন কর্তৃপক্ষ। এরা অবৈধ পথে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য দালালদের মাধ্যমে ইন্দোনেশিয়ার বালিতে গিয়ে চার দিনের বাস ভ্রমণের পর মেদান পৌঁছান।

‘উদ্ধার হওয়া সব বাংলাদেশিই মানবপাচারের শিকার’ উল্লেখ করে বৃহস্পতিবার দেশটির উত্তর সুমাত্রার অভিবাসন কার্যালয়ের প্রধান ফেরি মোনাং সিহিতে জানান, তারা পাচারকারীদের প্রলোভনে পড়ে মালয়েশিয়া যাওয়ার জন্য পর্যটক হিসেবে বালি ও যোগ্যকার্তা হয়ে সুমাত্রায় এসেছেন।

বুধবার রাতে উদ্ধারের সময় তাদের সবাইকেই সুস্থ অবস্থায় দেখা গেছে। বাংলাদেশি নাগরিকদের উদ্ধারের পর অভিবাসন বন্দিশালায় রাখা হয়েছে। সিহিতে জানান, সেখান থেকে তাদের বাংলাদেশে পাঠিয়ে দেওয়া হতে পারে।

মোনাং সিহি আরো জানিয়েছেন, আটক বাংলাদেশিদের মধ্যে রোহিঙ্গা মুসলমান নেই। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে শত শত রোহিঙ্গা বাংলাদেশ ও মিয়ানমার থেকে পালিয়ে নৌকায় চড়ে সুমাত্রায় পৌঁছায়। এদের বেশিরভাগের গন্তব্য ছিল মালয়েশিয়া।

উদ্ধার হওয়া ৩৯ বছর বয়সী মাহবুব স্থানীয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল ট্রিবিউন মেডানকে বলেছেন, পাচারকারীরা আমাদের দলের কয়েকজনকে তিন মাস ধরে বন্দি করে রেখেছেন। আমাদের লক্ষ্য ছিল মালয়েশিয়া যাওয়া। আমরা বাংলাদেশ থেকে রওনা দিয়ে বালি পৌঁছে চারদিনের যাত্রা শেষে মেদান পৌঁছাই।

তবে বার্তা সংস্থা রয়টার্স পুলিশ কিংবা আটক হওয়া বাংলাদেশিদের সঙ্গে এ নিয়ে কথা বলতে পারেনি।