ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

১৯ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১০:০২

ট্রাম্পের বিরুদ্ধে তারই ১৬ রাজ্যের মামলা

11032_16.jpg
যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা করেছে ১৬টি রাজ্য। নর্দান ডিস্ট্রিক্ট অব ক্যালিফোর্নিয়ার আদালতে এ মামলা হয়েছে। ১৬টি রাজ্যের এই জোটের নেতৃত্বে রয়েছে ক্যালিফোর্নিয়া। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের তহবিল ইস্যুতে ট্রাম্প যে জরুরি অবস্থা ঘোষণার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তা চ্যালেঞ্জ করে এ মামলা করা হয়েছে। এ খবর দিয়েছে অনলাইন বিবিসি।
কয়েকদিন আগে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের জন্য কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে জরুরি ক্ষমতা প্রয়োগ করে তহবিল সংগ্রহের ঘোষণা দেন। এর বিরুদ্ধে প্রতিটি পন্থা অবলম্বনের প্রত্যয় ঘোষণা করেছে বিরোধী ডেমোক্রেটরা। ক্যালিফোর্নিয়ার এটর্নি জেনারেল জাভিয়ের বেচারা বলেছেন, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের প্রেসিডেন্সিয়াল ক্ষমতার অপব্যবহার বন্ধ করতে তারা আদালতে গিয়েছেন।

তার ভাষায়, প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প একতরফাভাবে আমাদের জনগণের ট্যাক্সের অর্থ হরণ করছেন। তা করতে তিনি কংগ্রেসকে পাশ কাটিয়ে যাচ্ছেন। তার এমন কাজকে বন্ধ করতে আমরা তার বিরুদ্ধে মামলা করেছি। আমাদের বেশির ভাগ মানুষ মনে করেন, প্রেসিডেন্টের অফিস একটি থিয়েটার মঞ্চ নয়।
সোমবার করা এই মামলায় প্রাথমিক স্থগিতাদেশ চাওয়া হয়েছে। এর ফলে যতক্ষণ আদালতে আইনি লড়াই চলবে ততক্ষণ প্রেসিডেন্ট ডনাল্ড ট্রাম্পকে তার এ বিষয়ক কর্মকান্ড বন্ধ রাখতে হবে। মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ ট্রাম্পের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতি। এ নিয়ে তীব্র উত্তেজনা যুক্তরাষ্ট্রের রাজনীতিতে। তার এ সিদ্ধান্তের ঘোর বিরোধী ডেমোক্রেটরা। এমন কি তার নিজ দলের অনেকেই এর বিরোধিতা করেন। এ ইস্যুতে এ যাবতকালের মধ্যে সবচেয়ে বেশি দিন যুক্তরাষ্ট্রের সরকারের কর্মকান্ড অচল ছিল। কংগ্রেস তার ওই দেয়াল নির্মাণে অর্থ বরাদ্দ দিতে অস্বীকৃতি জানিয়ে আসছে। এরপরই প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প জরুরি অবস্থা ঘোষণার সিদ্ধান্ত নেন।
কিন্তু এতে তার সামনে দ্রুতই আইনি চ্যালেঞ্জ এসে যায়। প্রথমেই শুক্রবার চ্যালেঞ্জ করে উদার আইনি বা পরামর্শ বিষয়ক গ্রুপ পাবলিক সিটিজেন। তারা একটি প্রাকৃতিক সংরক্ষণাগার ও টেক্সাসের তিনজন ভূমি মালিেেকর পক্ষে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে মামলা ঠুকে দেন। ওই সংরক্ষণাগার ও ভূমির ওপর দিয়ে মেক্সিকো দেয়াল নির্মাণ হওয়ার কথা রয়েছে। ওদিকে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের সিদ্ধান্তকে ‘রাজনৈতিক নাটক’ আখ্যায়িত করে তা প্রত্যাখ্যান করেছেন ক্যালিফোর্নিয়ার গভর্নর গাভিন নিউসোম। নিউ ইয়র্কের ডেমোক্রেট এটর্নি জেনারেল লেতিতিয়া জেমস লড়াই চালিয়ে যাওয়ার প্রত্যায় ঘোষণা করেছেন।