ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG

৮ এপ্রিল ২০১৯, ১০:০৪

নির্বাচন শেষ, এরদোগানের চোখ এখন অর্থনীতিতে

11201_rtrmadp-3-turkey-iran.JPG

উদীয়মান পরাশক্তি তুরস্কে গত ৩১ মার্চ স্থানীয় সরকার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আগামী ৪ বছরের মধ্যে দেশটিতে নির্বাচন নেই। ২০২৩ সালে পরবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা রয়েছে।

স্থানীয় নির্বাচনে বিজয়ী হলেও এরদোগানের একে পার্টি পরাজিত হয়েছে রাজধানী আঙ্কারা ছাড়াও গুরুত্বপূর্ণ শহর ইস্তাম্বুল, আনাতোলিয়া ও ইজমিরে। গুরুত্বপূর্ণ সিটি কর্পোরেশনে একে পার্টির পরাজয়ের কারণ হিসেবে দেখা হচ্ছে দেশটির বর্তমান অর্থনৈতিক অবস্থাকে।

২০০২ সালে ক্ষমতা গ্রহণের পর থেকে তুরস্ককে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছেন প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান। ঋণগ্রস্থ দেশটি এখন ঋণ পরিশোধ করে উদ্বৃত্তের দেশে পরিণত হয়েছে। অর্থনৈতিক প্রবৃত্তি এরদোগান সরকারের অন্যতম সাফল্য।

কিন্তু গত বছর আমেরিকার সাথে রাজনৈতিক রেশারেশিতে জড়িয়ে পড়লে তার রেশ পড়ে তুরস্কের অর্থনীতিতে। ২০১৮ সালে ডলারের বিপরীতে লিরার মান কমে যায়। ফলে দেখা দেয় মৃদ্রাস্ফিতি। বেড়ে যায় বেকারত্ব।

এরদোগান বিদেশী বিনিয়োগ আকৃষ্ট করেছিলেন ক্রমবর্ধমান স্থিতিশীল অবস্থা তৈরি করে। কিন্তু গ্লোবাল ভিলেজের বর্তমান বিশ্বে ডলারের বিপরীতে মুদ্রার মান পড়ে গেলে আমদানি ও রপ্তানি সব ক্ষেত্রেই অচলাবস্থা ও মন্দা দেখা দেয়। তারই শিকার তুরস্কের বর্তমান অর্থনীতি এবং জনগণের রোজগার।