ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:

২০ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ১০:০২

সিরিয়ায় বিমান হামলায় নিহত ৭৭

1461_295512_134.jpg
সিরিয়ার সরকারি বাহিনীর প্রচণ্ড গোলাবর্ষণে অন্তত ৭৭ জন বেসামরিক নাগরিক নিহত হয়েছে। রাজধানীর উপকণ্ঠে পূর্ব গাউতা এলাকায় এই গোলাবর্ষণ করা হয় বলে অ্যাক্টিভিস্টরা জানিয়েছেন।

নিহতদের মধ্যে ২০ জন শিশুও রয়েছে। সোমবার রাতে বিমান ও রকেট হামলায় তারা নিহত হয় বলে সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস জানিয়েছে।

সিরিয়ার সেনাবাহিনী স্থল অভিযানের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও ধারণা করা হচ্ছে।
বোমা হামলা বন্ধ করার জন্য জাতিসঙ্ঘ কর্মকর্তারা অনুরোধ করেছেন।
২০১৩ সাল থেকে পূর্ব গাউতায় অন্তত চার লাখ লোক অবরোধের মুখে রয়েছে।

আফরিনে তুরস্ক-সিরিয়া সঙ্ঘাতের আশঙ্কা

সিরিয়ার আফরিনে তুরস্কের অভিযানের বিরুদ্ধে এতদিন কুর্দিদের পরোক্ষভাবে সহযোগিতা করলেও এবার সরাসরি সেনা মোতায়েন করতে পারে সিরিয়া। এ বিষয়ে কুর্দিদের সাথে বাশার আল আসাদ সরকারের সমঝোতা হয়েছে বলে কুর্দিদের একটি সূত্র জানিয়েছে। গত মাসে আফরিনে কুর্দি মিলিশিয়াদের বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান শুরু করেছে তুরস্ক।

তুরস্ককে মোকাবেলায় শুরু থেকে গোপনে কুর্দি বাহিনীকে রসদ সরবরাহ করে আসছে সিরিয়ার সরকারিবাহিনী। তবে নতুন সমঝোতার ভিত্তিতে অঞ্চলটিতে বাশার সরকার সেনা মোতায়েন করতে পারে বলে জানা গেছে। আফরিনে সেনা মোতায়েন করলে সেখানে তুরস্কের সাথে সিরিয়ার সরাসরি যুদ্ধে জড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে, সিরিয়ার উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের কুর্দি যোদ্ধাদের সাথে সিরীয় সরকারের সমঝোতা হয়েছে। চুক্তি অনুসারে আফরিনে তুরস্কের হামলা মোকাবেলায় কুর্দিদের সহযোগিতায় সেনা পাঠাবে সিরিয়া। কুর্দিদের পক্ষ থেকে এই সমঝোতার বিষয়টি জানালেও সিরীয় সরকারের পক্ষে তা নিশ্চিত করা হয়নি। কুর্দি কর্মকর্তা বাদরান জিয়া কুর্দ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে জানিয়েছেন, কয়েকদিনের মধ্যেই সরকারি সৈন্যরা আফরিনে প্রবেশ করতে পারে এবং তাদের সীমান্তের কয়েকটি অবস্থানে মোতায়েন করা হবে।

সিরিয়ার এক কুর্দি রাজনীতিকের বরাতে ইরাকি কুর্দি গণমাধ্যম গোষ্ঠী ও বার্তা সংস্থা রুদো ওই চুক্তির সংবাদ প্রকাশ করেছে। তবে চুক্তির বিষয়ে বিস্তারিত জানা যায়নি। তুর্কি অভিযানের শুরু থেকেই আফরিনে বিদ্রোহী কুর্দি সেনাদের সহায়তায় নিজেদের নিয়ন্ত্রণে থাকা এলাকা দিয়ে যোদ্ধা, বেসামরিক নাগরিক ও রাজনীতিকদের অবাধে চলাফেরা করার সুযোগ দিচ্ছে দামেস্কের সরকার। এমনকি সিরিয়ার কুর্দি অধ্যুষিত অন্যান্য এলাকা থেকেও যোদ্ধাদের সঙ্ঘাতপূর্ণ এলাকায় ঢুকতেও সহায়তা করছে তারা।

দামেস্কোকে আঙ্কারার হুঁশিয়ারি
তুরস্ক ওয়াইপিজি/পিকেকে সমর্থন দেয়ার বিরুদ্ধে সিরিয়া সরকারকে হুঁশিয়ার করে দিয়েছে। তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাবুসওগলু সিরিয়ার আঞ্চলিক অখণ্ডতার ব্যাপারে তুরস্কের স্পর্শকাতর অবস্থার বিষয় পুনরায় আশ্বস্ত করে সন্ত্রাসী ওয়াইপিজি/পিকেকে সমর্থন করার বিরুদ্ধে দামেস্কোকে হুঁশিয়ার করে দেন।
আঙ্কারায় সফররত জর্দানি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আইমান সাফাদির সাথে যৌথ সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বাশার সরকার যদি ওয়াইপিজি মুক্ত করতে আফরিনে আসে তাহলে কোনো সমস্যা নেই কিন্তু তারা যদি তাদের নিরাপত্তা দিতে সেখানে প্রবেশ করে তাহলে তুরস্কের সেনাদের কেউ রুখতে পারবে না।