ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

এ জায়েদ

২০ মার্চ ২০১৮, ১৫:০৩

গাজায় প্রধানমন্ত্রীর গাড়ি বহরে হামলায় হামাসকে দায়ি করলেন মাহমুদ আব্বাস

2093_1.jpg
গত সপ্তাহে ফিলিস্তিনের প্রধানমন্ত্রী রামি হামদুল্লাহর গাড়ি বহরে রাস্তার পাশে পুতে রাখা বোমা বিস্ফোরণের মাধ্যেমে হামলার জন্য গাজাভিত্তিক সশস্ত্র সংগঠন হামাসকে দায়ি করেছেন ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাস।
তিনি বলেন, আমরা তদন্ত করবো না, তাদের কাছ থেকে কোন তথ্যও চাইব না, তাদের কাছ থেকে কিছু চাইবো না কারণ আমরা জানি হামাস আন্দোলনই এটি করেছে।

গতকাল সোমবার মাহমুদ আব্বাস প্যালেস্টাইনের রামাল্লায় একটি মিটিংয়ে বক্তৃতাকালে এদাবি করেন।গাজা কর্তৃপক্ষের প্যালেষ্টাইনীদের কাছে বিট হানাউন নামে পরিচিত গাজার উত্তরাঞ্চলের ইসরাইল নিয়ন্ত্রিত চেকপোষ্ট ইরেজ পার হওয়ামমাত্র ওই গাড়িবহরে থাকা ফিলিস্তিন কর্তৃপক্ষের প্রধান গোয়েন্দা কর্মকর্তা মাজিদ ফারাজকে আক্রমন করা হয়।
বিস্ফোরনে সাতজন নিরাপত্তা সদস্য আহত হলেও রামি হামদুল্লাহ ও ফারাজ অক্ষত ছিলেন।
প্যালেস্টাইন কর্তৃপক্ষের পক্ষ থেকে হামাসকে দায়ি করার মন্তব্যের উত্তরে হামলার অল্পসময় পরেই হামাসের পক্ষ থেকে তদন্ত করে এর সাথে জড়িতদের পরিচয় বের করার দাবি জানানো হয়।
আব্বাস বলেন,গত সপ্তাহের হামলায় ‘হত্যাচেষ্টা’ সফল হলে রক্তাক্ত গৃহযুদ্ধের দ্বার উন্মোচন হতো।

 নির্বাচনের দাবি হামাসের
মাহমুদ আব্বাসের অভিযোগের উত্তরে হামাস ফিলিস্তিনে নির্বাচন আয়োজনের দাবি জানান। তারা বলেন, ‘আব্বাসের একপেশে অবস্থানে আমরা মর্মাহত। তার এই অবস্থান ফিলিস্থিনিদের মধ্যে সম্পর্কের সেতুবন্ধনকে জ্বালিয়ে দিবে এবং বিভক্তি দীর্ঘায়িত করবে ও জনগণের ঐক্যে ফাটল ধরাবে বলে হামাস দাবি করেন এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে।
‘‘সকলের অংশগ্রহণের মাধ্যমে প্রেসিডেন্সিয়াল, সংসদীয়, ও জাতীয় কাউন্সিলসহ সাধারন নির্বাচনের দাবি জানান হামাস, যাতে জনগণ তাদের নেতৃত্ব বাচাই করে নিতে পারে।’’
হামলা ও হামলা পরবর্তী বিবৃতি উভয় হামাস এবং ফিলিস্থিন কর্তৃপক্ষের যারা অধিকৃত পশ্চিম তীর শাসন করছে, তাদের মধ্যে সম্পর্কের অবনতি ঘটবে।
শাসকদল ফিলিস্থিনী কর্তৃপক্ষ ‘ফাতাহ’ এবং হামাস যারা গাজা নিয়ন্ত্রন করছে, উভয়পক্ষ গেল বছর ২০১৭ সালের অক্টেবরে একটি সমঝোতায় এসেছে দীর্ঘ একদশকের বিভক্তি মুছে। যার মাধ্যমে দুটি সমান্তরাল সরকার গাজা ও পশ্চিম তীর এক শাসনাধীনে আসবে।
কিন্তু চুক্তিটি এখনো বাস্তবায়ন করা হয়নি পরিপূর্ণভাবে প্যালেস্টাইনের দুটি বৃহৎ রাজনৈতিক দলের কার্যক্রমের মাধ্যমে।
বিশেষজ্ঞরা বলছে, হামদুল্লাহর বহরের উপর হামলাটি পুর্নমিলন প্রচেষ্টায় টান ধরাবে।
সুত্র: আল-জাজিরা