ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:
ব্রেকিং নিউজ
  • অমর একুশে বইমেলা চলবে ১৭ মার্চ পর্যন্ত**
  • টাঙ্গাইলের কালিহাতিতে তিনটি ট্রাকের সংঘর্ষে ১ জন নিহত
  • গাইবান্ধায় পুলিশের সাথে বিএনপি’র ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া
  • ঘোষণা ছাড়াই বন্ধ পাসপোর্ট কার্যক্রম, ভোগান্তিতে মানুষ

এনএনবিডি ডেস্ক

১৬ মার্চ ২০২২, ১৪:০৩

রাশিয়া ও ইউক্রেনে যাচ্ছেন তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী: এরদোগান

26367_সসন-ি=৮৭৬.jpg
কিয়েভে চলমান সংকটের সমাধান খুঁজে বের করতে কূটনৈতিক প্রচেষ্টা জোরদার করার পাশাপাশি তুর্কি পররাষ্ট্রমন্ত্রী রাশিয়া এবং ইউক্রেন সফর করবেন।

মঙ্গলবার তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়েপ এরদোগান এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন। খবর আনাদোলু এজেন্সির।

আঙ্কারায় প্রেসিডেন্সিয়াল কমপ্লেক্সে মন্ত্রিপরিষদের বৈঠকের পর এক বক্তৃতায় তিনি বলেন, ‘পররাষ্ট্রমন্ত্রী কাভুসোগলু বুধবার রাশিয়ার রাজধানী মস্কো সফর করবেন, তার পর যুদ্ধের একটি কূটনৈতিক সমাধান খোঁজার জন্য আমাদের প্রচেষ্টার সুযোগের মধ্যে ইউক্রেনে যাবেন।’

গত সপ্তাহে দক্ষিণ তুরস্কে অনুষ্ঠিত আন্টালিয়া কূটনীতি ফোরামের সাইডলাইনে কাভুসোগলু রাশিয়া ও ইউক্রেনের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে একটি যুগান্তকারী ত্রিপক্ষীয় বৈঠকের আয়োজন করার কয়েক দিন পর এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। সভা কভার করতে প্রায় ৪০০ দেশি-বিদেশি সাংবাদিক রিসোর্ট সিটিতে আসেন।

‘ইউক্রেন সংকট আমাদের মনে করিয়ে দিয়েছে যে রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামরিক ক্ষেত্রে শক্তিশালী হওয়া এবং স্বয়ংসম্পূর্ণতার বাইরে তার বন্ধু ও ভাইদের সমর্থন করার অবস্থানে থাকা তুরস্কের জন্য শুধু পছন্দ নয় বরং একটি বাধ্যবাধকতা,’ এরদোগান বলেন।

তিনি আরও বলেন, তিনি বুধবার আঙ্কারায় তার পোল্যান্ডের সমকক্ষ আন্দ্রজে দুদার সঙ্গে দেখা করবেন।

আন্টালিয়া কূটনীতি ফোরাম এবং তুরস্কে বিশ্বনেতাদের সাম্প্রতিক সফরের বিষয়ে এরদোগান বলেন, তার দেশ কূটনীতির একটি কেন্দ্র হিসাবে তার অবস্থানকে আরও উন্নত করছে।

আমি বিশ্বাস করি আন্টালিয়া কূটনীতি ফোরাম অংশগ্রহণকারীদের প্রোফাইল, সেখানে প্রদত্ত বার্তা এবং আঞ্চলিক ও বৈশ্বিক উন্নয়নের প্রতি আমাদের দেশের মনোভাব উভয়ের ক্ষেত্রেই একটি গুরুত্বপূর্ণ প্ল্যাটফর্ম বলে তিনি বলেন।

ফোরামে অবদানকারী সবাইকে ধন্যবাদ জানান এরদোগান।

‘রিকোডিং কূটনীতি’ থিমের অধীনে ১১-১৩ মার্চ অনুষ্ঠিত ফোরামে তিন হাজার জনেরও বেশি লোক অংশগ্রহণ করেছিল। আনাদোলু এজেন্সি (এএ) ছিল ইভেন্টের বৈশ্বিক যোগাযোগ অংশীদার, যা ১৭টি রাষ্ট্রপ্রধান, ৮০ মন্ত্রী এবং আন্তর্জাতিক সংস্থার ৩৯ প্রতিনিধিসহ ৭৫টি দেশের অংশগ্রহণকারীদের একত্রিত করেছিল।

তুরস্ক এটিকে ইউক্রেনের বেসামরিক নাগরিকদের দুর্ভোগের অবসানের দায়িত্ব হিসাবে দেখে এবং এই বিষয়ে কূটনৈতিক যোগাযোগ স্থাপনের জন্য সচেষ্ট হয়েছে এরদোগান সম্প্রতি বলেন, রাশিয়ানদের বিরুদ্ধে ‘ফ্যাসিবাদী অনুশীলন’ ইউক্রেনের বৈধ সংগ্রামের ওপর ছায়া ফেলেছে। সূত্র: ডেইলি সাবাহর।