ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

এনএনবিডি ঢাকা:

১৮ জুলাই ২০১৮, ২২:০৭

রিমান্ড শেষে রাশেদ কারাগারে

5315_rashed.jpg
কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতা ও বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মুহাম্মাদ রাশেদ খানকে রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দিয়েছেন আদালত।

বুধবার ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আসাদুজ্জামান নূর আসামির জামিন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর এ আদেশ দেন।

অপরদিকে কোটা সংস্কার আন্দোলনের অপর নেতা বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক মো. সোহেল ইসলামকে কারাগার থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য অনুমতি দিয়েছেন আদালত। আসামিপক্ষের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে ঢাকা মহানগর হাকিম মো. গোলাম নবী এ আদেশ দেন।

আদালত সূত্র জানায়, চলতি মাসের ৮ জুলাই কোটা সংস্কার নিয়ে ফেসবুক লাইভে প্রধানমন্ত্রী সম্পর্কে মানহানিকর বক্তব্য দেয়ার অভিযোগে তথ্যপ্রযুক্তি আইনের মামলায় ৫ দিন এবং আন্দোলনের সময় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাসায় ভাঙচুরের অপর মামলায় রাশেদের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

রিমান্ড শেষে এদিন রাশেদকে আদালতে হাজির করে তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। অপরদিকে রাশেদের পক্ষে জামিন আবেদন করা হয়।

জামিন শুনানিতে রাশেদের আইনজীবী জাহাঙ্গীর আলম, নূর উদ্দিন, জাইদুর রহমান আদালতকে বলেন, রাশেদকে রিমান্ডে নিয়ে শারীরিক নির্যাতন করা হয়েছে। চিকিৎসার জন্য হলেও তার জামিন জরুরি। রাশেদ একজন বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র, জামিন দিলে সে পলাতক হবে না। উভয়পক্ষের শুনানি শেষে রাশেদের জামিন নাকচ করে তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত।

অপরদিকে কোটা সংস্কার আন্দোলনের অপর নেতা মো. সোহেল ইসলামকে কারাগার থেকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য অনুমতি চেয়ে আদালতে আবেদন করেন তার আইনজীবী জাইদুর রহমান।

শুনানিতে তিনি বলেন, গত ১১ জুলাই গ্রেফতার হয়ে সোহেল কারাগারে রয়েছেন। তিনি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের স্নাতক তৃতীয় বর্ষের ছাত্র। তার দ্বিতীয় সেমিস্টার পরীক্ষার সময়সূচি প্রকাশ হয়েছে, যা ১৫ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই পর্যন্ত চলমান থাকবে। শুনানি শেষে আদালত কারাবিধি অনুসারে সোহেলকে পরীক্ষায় অংশগ্রহণের জন্য ব্যবস্থা নেয়ার আদেশ দেন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসির বাড়ি ভাঙচুরের মামলায় গ্রেফতার হয়ে কারাগারে রয়েছেন সোহেল।