ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

এনএনবিডি ডেস্ক:

১৮ জুলাই ২০১৮, ০০:০৭

ভোল পাল্টালেন ট্রাম্প

5322_trupm.jpg
২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে হস্তক্ষেপের জন্য রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনকে জবাবদিহি করাতে না পারায় সমালোচনার মুখে ভোল পাল্টালেন ডোনাল্ড ট্রাম্প।

তিনি বলেন, হেলসিংকির সংবাদ সম্মেলনে তার বক্তব্যে তার ব্যাকরণগত ভুল হয়েছিল। তিনি বলতে চেয়েছিলেন, ওই নির্বাচনে রাশিয়া ভূমিকা রেখেছে, সেটি মনে না করার কোনো কারণ দেখি না।

সোমবার পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের সময় ট্রাম্প যুক্তরাষ্ট্রের নির্বাচনে হস্তক্ষেপের জন্য রাশিয়ার সমালোচনা করেননি। বরং মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর বক্তব্য নিয়ে সন্দেহ প্রকাশ করে সবাইকে বিস্মিত করেছেন।

এরপরই বিষয়টি নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়তে হয়েছে তাকে। সমালোচনার সেই ঝড় সামলাতে নিজের ভোল পাল্টালেন তিনি। নির্বাচনে রুশ হস্তক্ষেপ নিয়ে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থাগুলো যে প্রতিবেদন দেবে তা মেনে নেবেন বলেই এখন স্বীকার করেছেন ট্রাম্প। অথচ মাত্র একদিন আগেই তার সুর ছিল ভিন্ন।

ফিনল্যান্ডের হেলসিংকিতে পুতিনের সঙ্গে বৈঠকের পর সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প ২০১৬ সালের নির্বাচন নিয়ে রাশিয়ার মাথা ঘামানোর কোনো কারণ নেই বলে মন্তব্য করেন। তাকে জিজ্ঞাসা করা হয়েছিল, নির্বাচনে হস্তক্ষেপের অভিযোগের ক্ষেত্রে তিনি যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থা না রুশ প্রেসিডেন্ট কাকে বিশ্বাস করবেন?

জবাবে ট্রাম্প বলেছিলেন, রাশিয়ার এটি করার কোনো কারণ আমি দেখছি না। রাশিয়া এটি করেনি বলে জোরালভাবেই জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট পুতিন। রাশিয়ার সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রের নাজুক সম্পর্কের জন্য বিগত মার্কিন প্রশাসনকে দায়ী করেন তিনি।

যা নিয়ে দেশের ভেতর ট্রাম্পকে কঠোর সমালোচনার মুখে পড়তে হয়। এমনকি অনেক রিপাবলিকান নেতাও তার তীব্র সমালোচনা করেন। এ সমালোচনার মুখে ২৪ ঘণ্টারও বেশি সময় পর ট্রাম্প হোয়াইট হাউসে সাংবাদিকদের বলেন, আমি রাশিয়া কেন ওই কাজ করবে না বলতে গিয়ে কেন এটি করবে বলে ফেলেছিলাম। বাক্যটা আসলে হবে রাশিয়া এটি না করার কোনো কারণ দেখি না। নিজের বক্তব্যের এ ব্যাখ্যা দেয়া ছাড়াও ট্রাম্প এখন বলছেন, যুক্তরাষ্ট্রের গোয়েন্দা সংস্থাগুলোর ওপর তার পূর্ণ আস্থা ও সমর্থন আছে।