ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

এনএনবিডি ডেস্ক

১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১২:০৯

অ্যাপলে যুক্ত হলো আইফোন এক্সএস, এক্সএস ম্যাক্স ও এক্সআর

6717_9.jpg
নতুন আইফোন ঘিরে সব জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটেছে। ১২ সেপ্টেম্বর রাতে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়ার স্টিভ জবস থিয়েটারে অ্যাপলের পণ্য ঘোষণার অনুষ্ঠানে অ্যাপলপ্রেমীদের চোখ আটকে ছিল। গুঞ্জন ছিল, এ বছর নতুন তিনটি মডেলের আইফোন আনবে অ্যাপল। আইফোনপ্রেমীদের প্রত্যাশা পূরণ করার ঘোষণা দিয়েছে মার্কিন প্রযুক্তিনির্ভর প্রতিষ্ঠানটি। ঘোষণা দিয়েছে, আইফোন এক্সএস, এক্সএএস ম্যাক্স ও আইফোন এক্সআর।

প্রযুক্তি বিশ্লেষকের চোখে এবারের নতুন তিনটি মডেলের আইফোনে নতুনত্ব নেই। এর নকশা গত বছরে বাজারে আনা আইফোন এক্সের মতো। তবে এতে বিভিন্ন ফিচারের কারণে দামে পার্থক্য এসেছে।

এনডিটিভির এক প্রতিবেদনে বলা হয়, আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্সে ওএলইডি ডিসপ্লে থাকলেও আইফোন এক্সআরে থাকবে এলসিডি ডিসপ্লে।
নতুন মডেল আইফোন এক্সআর

এক্সআর ফোনে একটি ৬ দশমিক ১ ইঞ্চি এজ-টু-এজ এলসিডি ডিসপ্লে ব্যবহার করেছে অ্যাপল। তিনটি মডেলের আইফোনে এসেছে অ্যাপলের নতুন এ১২ বায়োনিক চিপ। নতুন এই এলসিডি ডিসপ্লের নাম রাখা হয়েছে লিকুইড রেটিনা ডিসপ্লে। এ১২ বায়োনিক চিপে থাকছে সর্বাধুনিক সাত ন্যানোমিটার আর্কিটেকচার। এ ছাড়া থাকবে ফেসআইডি, ট্রু ডেপথ ক্যামেরা। ৬৪ জিবি, ১২৮ জিবি আর ২৫৬ জিবি স্টোরেজ সংস্করণে পাওয়া যাবে নতুন আইফোন এক্সআর।

যুক্তরাষ্ট্রে ৬৪ জিবি আইফোন এক্সআরের দাম ৭৪৯ মার্কিন ডলার। ১২৮ জিবি ও ২৫৬ জিবি এক্সআর কিনতে যুক্তরাষ্ট্রে খরচ হবে যথাক্রমে ৭৯৯ ডলার আর ৮৯৯ ডলার। আগামী ১৯ অক্টোবর থেকে আইফোন এক্সআরের আগাম ফরমাশ নিতে শুরু করবে অ্যাপল। ২৬ অক্টোবর থেকে বিশ্বের ৫০টি দেশে আইফোন বিক্রি শুরু হবে। আইফোন এক্সআরে থাকবে আইওএস ১২ অপারেটিং সিস্টেম। থাকবে ডুয়েল সিম স্ট্যান্ড বাই। এতে বাদ গেছে থ্রি ডি টাচ।
অ্যাপল বলছে, তাদের এবারের তৈরি নতুন ৬ কোরের এ১২ বায়োনিক চিপ আগের চেয়ে ১৫ শতাংশ দ্রুতগতির। এ মুহূর্তে সবচেয়ে শক্তিশালী মোবাইল প্রসেসর এটি।

এক্সএস ও এক্সএস ম‍্যাক্স গতানুগতিক
আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম‍্যাক্সের ডিভাইসের ডিসপ্লে সাইজ যথাক্রমে ৫ দশমিক ৮ ও ৬ দশমিক ৫ ইঞ্চি। ৪৫৮ পিপিআই ও এলইডি এইচডিআর ডিসপ্লে রয়েছে এতে।
আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্সে স্টেইনলেস স্টিল বডি থাকলেও আইফোন এক্সআরে থাকবে অ্যালুমিনিয়াম বডি।

এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্সে থাকবে সিঙ্গেল রিয়েল ক্যামেরা সিস্টেম। এই ক্যামেরায় থাকবে একটি ১২ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি সেন্সর। ফোনের সামনে থাকবে একটি ট্রু ডেপথ ফ্রন্ট ক্যামেরা। এর সঙ্গে থাকবে একাধিক ফেস আনলক সেন্সর।

তিনটি নতুন আইফোনের ডিসপ্লের ওপরে থাকবে কালো নচ। এ নচের নিচে থাকবে ফ্রন্ট ক্যামেরা ও একাধিক সেন্সর।

অ্যাপল কর্তৃপক্ষ বলেছে, নতুন আইফোন চলবে আইওএস ১২ অপারেটিং সিস্টেমে। ২০১৭ সালের আইফোন এক্সের মতোই ৫ দশমিক ৮ ইঞ্চি মাপের এক্সএস মডেলে ওএলইডি সুপার রেটিনা ডিসপ্লে থাকছে। ম্যাক্সের ক্ষেত্রেও সাড়ে ছয় ইঞ্চি মাপের ওএলইডি ডিসপ্লে থাকছে।
নতুন আইফোন সম্পর্কে অ্যাপলের বিপণন বিভাগের জ্যেষ্ঠ ভাইস প্রেসিডেন্ট ফিল শিলার বলেছেন, আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্সে ব্যাটারি লাইফ বেশি হবে। আইফোন এক্সের তুলনায় এক থেকে দেড় ঘণ্টা পর্যন্ত চার্জ বেশি থাকবে। এটি আইপি-৬৮ রেটিংয়ের। অর্থাৎ এটি ধুলা ও পানিরোধী।

অ্যাপলের প্রধান নির্বাহী টিম কুক দাবি করেছে, আইফোন হলো বিশ্বের এক নম্বর স্মার্টফোন। এর গ্রাহক সন্তুষ্টির হার ৯৮ শতাংশ। আইফোন এক্সএস ও এক্সএস ম্যাক্স আইফোনটি হচ্ছে এখন পর্যন্ত অ্যাপলের তৈরি সবচেয়ে উন্নত ফোন।