ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ১৫:০৯

মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ চলছে

7046_hhh.jpg
মালদ্বীপে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। স্থানীয় সময় রোববার সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোটে প্রায় আড়াই লাখ ভোটার তাঁদের ভোট প্রদান করবেন। আজ মধ্যরাতেই এ নির্বাচনের প্রাথমিক ফল পাওয়া যাবে।

বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিন তাঁর দল প্রগ্রেসিভ পার্টি অব মালদ্বীপের পক্ষ থেকে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন। এ ছাড়া বিরোধী মালদ্বীপ ডেমোক্রেটিক পার্টির (এমডিপি) ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ নির্বাচনে প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিসেবে রয়েছেন। তবে গত ফেব্রুয়ারিতে দলটি থেকে নির্বাচিত সাবেক প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদ নিজেকে প্রার্থী হিসেবে ঘোষণা দিলেও পরে তা প্রত্যাহার করে নেন।

দুর্নীতি ও সন্ত্রাসী কার্যক্রমে জড়িত থাকার অভিযোগে বহু বিরোধীদলীয় নেতাকে কারাগারে পাঠানো হয়েছে দেশটিতে। এ ছাড়া ভোট গণনার নতুন নিয়ম জারি করায় পর্যবেক্ষক সংস্থাগুলো আপত্তি জানিয়েছে। নতুন নিয়মের ভোট গণনায় নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা ব্যালট পেপার দেখার সুযোগ পাবেন না। ফলে ধারণা করা হচ্ছে, বর্তমান ক্ষমতাসীন ইয়ামিন আবারও পাঁচ বছরের জন্য ক্ষমতা পাকাপোক্ত করতে যাচ্ছেন।

নির্বাচন পর্যবেক্ষণকারী সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি মালদ্বীপের সিনিয়র প্রজেক্ট কোঅর্ডিনেটর আহমেদ তলাল রয়টার্সকে বলেন, ‘ভোট গ্রহণের পদ্ধতিতে অবশ্যই নানাবিধ সমস্যা রয়েছে। তবুও আমরা আশা করছি, যেন মানুষকে মৌলিক অধিকার প্রয়োগের সুযোগটা দেওয়া হয়।’

বিরোধীদলীয় যৌথ প্রার্থী ইব্রাহিম মোহাম্মদ সলিহ তাঁর সমর্থকদের উদ্দেশে বলেছেন, নির্বাচনী প্রচারণার সময় সরকারের বিমাতাসুলভ আচরণ এবং ক্ষমতাসীনদের আবারও জয়ী ঘোষণা করতে নির্বাচন কমিশনের চেষ্টা সত্ত্বেও তিনি জয়ের ব্যাপারে আশাবাদী।

সলিহ শনিবার এক নির্বাচনী সভায় বলেছেন, ‘দেশের মানুষ আগামীকাল একটি পরিবর্তনের জন্য মুখিয়ে আছে।’ এদিন আবদুল্লাহ ইয়ামিনও ভোটে জয়ের ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

ভারত মহাসাগরের চার লাখ জনসংখ্যার দ্বীপদেশটি সম্প্রতি তার দীর্ঘদিনের উন্নয়ন সহযোগী ভারত থেকে মুখ ফিরিয়ে চীনের সঙ্গে সখ্য বৃদ্ধির কারণে আন্তর্জাতিক মহলে আলোচনায় রয়েছে। দেশটিতে দিন দিন চীনের প্রভাব বাড়ার বিষয়টি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপীয় দেশগুলোর দুশ্চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে।

ইউরোপীয় ইউনিয়ন ও জাতিসংঘ তাদের নির্বাচন পর্যবেক্ষক পাঠাতে অস্বীকৃতি জানিয়েছে। নির্বাচনের কয়েক দিন আগে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ এক বিবৃতিতে দেশটিতে গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার আহ্বান জানায়।

মালদ্বীপের ৮৫ সদস্যের পার্লামেন্ট পিপলস মজলিসে বর্তমান প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিনের দল প্রগ্রেসিভ পার্টি অব মালদ্বীপ সংখ্যাগরিষ্ঠ। এর পরেই রয়েছে মোহাম্মদ নাশিদের নেতৃত্বাধীন মালদ্বীপ ডেমোক্রেটিক পার্টি।

১৯৭৮ সালে ক্ষমতায় আসার পর তিন দশক একনায়কতান্ত্রিক উপায়ে দেশটির সরকার পরিচালনা করেন মামুন আবদুল গাইয়ুম। ২০০৮ সালে প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রেসিডেন্ট মোহাম্মদ নাশিদ বর্তমানে কারাগারে রয়েছেন। মামুন আবদুল গাইয়ুম বর্তমান ক্ষমতাসীন প্রেসিডেন্ট আবদুল্লাহ ইয়ামিনের সৎভাই।