ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG
সর্বশেষ:

এনএনবিডি, ঢাকা:

১ ডিসেম্বর ২০১৮, ২৩:১২

ফ্লাইওভার শহরের জন্য অভিশাপ: আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ

9069_Nischa-Seminar-03.jpg
ফ্লাইওভারকে শহরের জন্য একটি ‘অভিশাপ’ হিসেবে বর্ণনা করে বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের সভাপতি আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেছেন, এ দেশে ফ্লাইওভার বানানো হচ্ছে ‘কিছু লোকের লাভের জন্য’।

নিরাপদ সড়ক চাই আন্দোলনের ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে শনিবার এক সেমিনারে তিনি এ মন্তব্য করেন।

আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ বলেন, “ফ্লাইওভার একটি শহরের জন্য অভিশাপ। পৃথিবীর অনেক শহরে ফ্লাইওভার ভেঙে ফেলা হচ্ছে, আমাদের শহরেও একসময় ভেঙে ফেলতে হবে।”

ফ্লাইওভার হলে মাঝখান থেকে কিছু লোকের শুধু লাভ হয় মন্তব্য করে তিনি বলেন, “এটাই হচ্ছে ঘটনা। কারণ ফ্লাইওভার হলেই টাকা। ২০০ কোটিতে শুরু হলেও ব্যয় দুই হাজার কোটিতে নিয়ে যাবে। তো এ থেকে একটা বালুকণা সমান টাকা পকেটে ঢুকলেও লাভ।”

ফ্লাইওভারের ওপরে যতটুকু রাস্তা, নিচের ততটুকু রাস্তাই অব্যবহৃত অবস্থায় থেকে যায় মন্তব্য করে এইভাবে ফ্লাইওভার তৈরির যৌক্তিকতা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন অধ্যাপক সায়ীদ।

তিনি বলেন, “তাহলে উপরের রাস্তার প্রয়োজন কেন? নিচের রাস্তা দিয়েই তো চলতে পারি।”

সাম্প্রতিক সময়ে ঢাকায় কয়েকটি ফ্লাইওভার তৈরি হওয়ার পর এক জায়গায় যানজট কমলেও নামার মুখে যে নতুন করে যানজট সৃষ্টি হচ্ছে- সে বিষয়টি তুলে ধরেন আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ।

“আমাদের ফ্লাইওভারগুলোতে উঠতে পারবেন, কিন্তু নামতে পারবেন না। বাংলামোটরের ওখানে নামার জায়গায় একমাইল লম্বা জ্যাম। এ যেন মাছ ধরার চাঁই, ‘যাইতে হারে তো আইতে হারে না’।”

ঢাকার রিকশা এবং চলাচলের ফুটপাত নিয়ন্ত্রণ করা গেলে এভাবে হাজার হাজার কোটি টাকা ‘নষ্ট করার’ প্রয়োজন হত না বলেও মত দেন বিশ্বসাহিত্য কেন্দ্রের প্রতিষ্ঠাতা।