ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG

সিটি করপোরেশন নির্বাচন

২৩ জুন ২০১৮, ২১:০৬

এমন কর্ম করব বিশ্ব আমাকে স্মরণ করবে : হাসান সরকার

73_2.jpg
আজ রাত বারোটায় শেষ হচ্ছে সব ধরণের প্রচার-প্রচারণা। প্রার্থীদের প্রচার প্রচারনাও শেষ পর্যায়ে। নির্বাচনে বড় দুইদল আওয়ামী লীগ ও বিএপির মাঝেই মুলত প্রতিদ্বন্দিতা হবে। অপর দলের প্রার্থীরাও নির্বাচনের মাঠে তাদের গ্রহণযোগ্যতা যাচাই করে দেখতে চায়। এদিকে খুনলা সিটি নির্বাচন, বিএনপিসহ বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গ্রেফতারসহ সাম্প্রতিক সময়ের নানা ঘটনায় ভোটারদের মাঝে সৃষ্টি হয়েছে মিশ্রপ্রতিক্রিয়া।

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ভোট গ্রহন প্রক্রিয়া দেখে আওয়ামী লীগ দলীয় প্রার্থী, ভোটার ও সমর্থকরা উজ্জীবিত।

অপর দিকে বিএনপি ও অন্যান্য দলের প্রার্থী, ভোটার ও সমর্থকদের মাঝে ক্ষোভ সৃষ্টি হয়েছে। নির্বাচন ব্যবস্থাপনা-স্বচ্ছতা নিয়ে সন্দেহ ও উৎকন্ঠা তৈরী হয়েছে। নির্বাচনের পুরো প্রক্রিয়াকে বিশ্বাসযোগ্য করতে এবং ভোটারদের আস্থায় আনতে কমিশনকে বিরোধীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে কিছু পদক্ষেপ নেয়া জরুরী বলে সংশ্লিষ্টদের মত।

এদিকে নির্বাচনের সকল সরঞ্জামাদি জেলা নির্বাচন কমিশন এসে পৌছেছে। সেখান থেকে আগামী ২৫ জুন বিভিন্ন ভোটকেন্দ্রে সরবরাহ করা হবে।

বিএনপির মেয়র প্রার্থী মো. হাসান উদ্দিন সরকার বলেছেন, আমাকে প্রশাসনিকভাবে হয়রানী করা হচ্ছে। মামলা নেই তারপরও আমার লোকজনকে গ্রেপ্তার করা হচ্ছে, হয়রানী করা হচ্ছে। আমি এ ব্যাপারে শনিবার সকালে নির্বাচন কমিশনে লিখিত অভিযোগ দিয়েছি।
আমি এখনও আবেদন করব, আমি এখনও নিবেদন করব, আপনারা সেই শান্তির পরিবেশ রক্ষা করুন। আর তা যদি নয় হয় আমি পূর্বে একটা ঘোষণা দিয়েছি, আমি এমন একটা কর্ম কর যে তা সমাজের ক্ষতি হবেনা, কিন্তু চিরদিন যেন এ বিশ্ব স্মরণ করে নির্বাচনের জন্য হাসান উদ্দিন সরকার ওই কর্ম করেছে।

শনিবার বিকেলে নগরীর পূবাইল এলাকায় গণসংযোগ ও পথসভায় বক্তব্য প্রদানকালে হাসান উদ্দিন সরকার ওইসব কথা বলেন। এসময় তার সঙ্গে জেলা বিএনপির সভাপতি একেএম ফজলুল হক মিলন, সাধারণ সম্পাদক কাজী সাইয়্যেদুল আলম বাবুল, ড্যাব নেতা ডা. এজেডএম জাহিদ হোসেন। এছাড়া অন্যান্য এলাকায় তার পক্ষে কেন্দ্রীয় নেতা গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, হাসান সরকার বলেন, আমার নেতা-কর্মীদের বাড়িতে গিয়ে অভিযানের নামে পুলিশ গিয়ে হয়রানী করছে। গেল রাতে গাছা এলাকা থেকে কাউছার নামের এক কর্মীকে গ্রেপ্তার করেছে। ছাত্রলীগ-যুবলীগের নেতা-কর্মীরা নগরীরর পোড়াবাড়ি এলাকা থেকে আমার প্রচারণার দুইটি মাইক ছিনিয়ে গেছে।

তিনি বলেন আওয়ামীলীগ ছাত্রলীগ-যুবলীগ নেতা-কর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, আমরা যেন কলহ না করি, বিরোধ না করি, আমার যেন কারো সর্বনাশ করি। আমরা যেন শান্তির পথে চলি। রাজনীতি মানুষের কল্যানের জন্য। রাজনীতি যদি মানুষের মধ্যে সমাজের মধ্যে অশান্তি সৃষ্টি হয়, মুরুব্বীদের মধ্যে অশান্তি সৃষ্টি হয়, সেটা রাজনীতি নয়।