ENGLISH  |  ARABIC  |  NNBDJOBS  |  BLOG

সিটি করপোরেশন নির্বাচন

সাকিল আহমেদ

১৪ জুলাই ২০১৮, ১৪:০৭

এবারের নির্বাচনে চমক এড.জুবায়ের!

83__20180714_133449.jpg
আগামী ৩০ শে জুলাই সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন।নির্বাচনকে সামনে রেখে মেয়র প্রার্থীরা ভোটারদের দ্বারে দ্বারে ভোটের প্রচারণা চালাচ্ছে,চষে বেড়াচ্ছে পুরো নগরী।নির্বাচন ঘনিয়ে আসার সাথে সাথে আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে সিলেট নাগরিক ফোরাম মনোনিত মেয়র পদপ্রার্থী,সিলেট জর্জ কোর্টের বিশিষ্ট আইনজীবী ও সিলেট মহানগর জামায়াতের আমীর এ্যাড.এহসানুল মাহবুব জুবায়ের।গত (০৪) জুলাই এ্যাড.জুবায়েরের মনোনয়নপত্র নির্বাচন কমিশন কর্তৃক বৈধ ঘোষণা হওয়ার পর থেকে মাঠ পর্যায়ে প্রচার প্রচারণায় ব্যাস্ত সময় পার করছে দলের নেতা কর্মীরা।

গত ১০ শে জুলাই আনুষ্ঠানিক ভাবে নির্বাচন কমিশন কর্তৃক প্রতীক পাওয়ার পর থেকে নেতাকর্মীদের মধ্যে উৎসাহ-উদ্দীপনা প্রবল আকারে দেখা গিয়েছে।এবারের নির্বাচনে এ্যাড.জুবায়ের নির্বাচন করবেন [টেবিল ঘড়ি ] মার্কা নিয়ে। জামায়াতে ইসলামী জন্মলগ্নের পর এই প্রথম কোন সিটিতে প্রার্থী দেওয়া বেশ চাঙ্গা হয়ে উঠেছে দলের মাঠ পর্যায়ের নেতা কর্মীরা।এবারের নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে আওয়ামিলীগ নেতা বদর উদ্দিন আহমদ কামরান ও বিএনপি নেতা আরিফুল হক চৌধুরী ও বদরুজ্জামান সেলিম প্রার্থী থাকায় অনেকে ক্লিন ইমেজ খ্যাত ‌এ্যাড.জুবায়েরকে নিয়ে চিন্তা শুরু করে দিয়েছেন।

তাছাড়া অন্যান্য প্রার্থী থেকে শিক্ষা দীক্ষায় ঢেড় এগিয়ে এ্যাড.জুবায়ের,তিনি চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রসায়ন এর উপর অনার্স ও মাস্টার্স শেষ করেন এবং এলএলবি সম্পন্ন করে সিলেট জর্জ কোর্টের বিশিষ্ট আইজীবি হিসেবে নিয়োজিত আছেন। ইতিমধ্যে ‌এ্যাড. জুবায়ের ইত্যিমধ্যে তার বিভিন্ন বক্তব্যে বলেছেন,ইনসাফ ও উন্নয়নের ভিত্তিতে আধুনিক নগরী হিসেবে সিলেটকে গড়ে তোলাই আমার লক্ষ্য।নগর পরিচালনায় সুশাসন নিশ্চিত করতে প্রয়োজন সকলের সম্মিলিত প্রচেষ্টা ও আন্তরিকতা এবং সহযোগিতা।

নগরবাসীর মতে সিলেটে রাজনীতির মাঠে ক্লিন ইমেজের অধিকারী পরিচ্ছন্ন রাজনীতিবিদ হিসেবে এ্যাড.জুবায়ের রয়েছে আলাদা গ্রহনযোগ্যতা।আদালত পাড়ায় রয়েছে তার সুনাম ও সুখ্যাতি।ইসলামী ছাত্রশিবিরের এককালের নগর সভাপতি ও কেন্দ্রয়ী সভাপতি ও জামায়াতের আমীর হওয়ায় নগরীর প্রতিটি থানা,ওয়ার্ড,পাড়া-মহল্লায় রয়েছে তার বিচরণ।সামাজিক ও সুস্থ সাংস্কৃতিক অঙ্গনে রায়েছে সুখ্যাতি।শুধুমাত্র রাজনৈতিক মামলা ছাড়া তার বিরুদ্ধে আর কোন অভিযোগ নেই।

এদিকে এহসানুল মাহবুব জুবায়ের প্রতীক পাওয়ার পর থেকে ফেইসবুক,টুইটার সহ বিভিন্ন ব্লগে তাকে নিয়ে চলছে তুমুল প্রচারনা।প্রতিপক্ষ প্রার্থীরাও তাকে নিয়ে ভাবনা শুরু করে দিয়েছে।ভার্চুয়াল জগতে রীতিমত ঝড় তুলছে তার সমর্থকরা।

তাই এখন দেখার বিষয় কে হচ্ছে সিলেট নগরির কর্ণধার তা জানতে হলে অপেক্ষা করতে হবে আহামী ৩০ জুলাই পর্যন্ত।